বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪, ০৪:৫০ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
শিক্ষক মঞ্জুরুল ইসলামের মৃত্যুতে বিভিন্ন মহলের শোক সাড়ে ২১ লাখ টাকার ভারতীয় চিনি সহ দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশের জালে আটক বিয়ানীবাজারের দেলোয়ার আজ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী সিলেটে বিদ্যুৎস্পষ্ট হয়ে দুই স্থানে দুই জনের মৃত্যু জকিগঞ্জে বন্যার পানিতে ডুবে এক ব্যক্তির মৃত্যু চিনি ছিনতাই কান্ডে তাহমিদ নামে আরো একজন গ্রেফতার চিনি কান্ডে বিয়ানীবাজার উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত; রাজপথে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল বিয়ানীবাজারে বহুল আলোচিত চিনি কান্ড:এ পর্যন্ত গ্রেফতার ০২ সিলেটের মেজরটিলায় টিলা ধসে ৩ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু বিয়ানীবাজারে একই রাতে ১৫ আসামী গ্রেফতার
জমজ ভাইয়ের সঙ্গে জমজ বোনের বিয়ে

জমজ ভাইয়ের সঙ্গে জমজ বোনের বিয়ে

দর্পণ ডেস্ক : বরিশালে জমজ দুই বোনের সঙ্গে বিয়ে হলো জমজ দুই ভাইয়ের।

সোমবার (০১ ফেব্রুয়ারি) দিবাগত রাত ১১টার দিকে নগরের নাজির মহল্লা এলাকায় বোষ বাড়িতে এ বিয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

জানা গেছে, বরিশাল নগরের নাজির মহল্লা এলাকার বাসিন্দা স্বপন কর্মকারের জমজ মেয়ে। সোনালী কর্মকার সোনা ও রুপালী কর্মকার রুপা।

অপরদিকে পিরোজপুরের স্বরুপকাঠি থানা এলাকার ইন্দেরহাট এলাকার স্বর্গীয় নিখিল লাল কর্মকারের ছেলে সজল কর্মকার ও কাজল কর্মকার। তারাও জমজ ভাই।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মাস কয়েক আগে পারিবারিকভাবে দুই পরিবারের মধ্যে বিয়ে নিয়ে আলোচনা ও দেখাদেখির আনুষ্ঠানিকতা সম্পন্ন হয় এবং বিয়ের কথা পাকাপাকি হয়। আর সেখান থেকেই নির্ধারিত সোমবার রাতে ছিলো বিয়ের দিনক্ষণ। যা সুষ্ঠুভাবে এবং নানা আনুষ্ঠানিকতার মাধ্যমে শেষ হয়েছে।

এদিকে এই বিয়ে দেখতে সোমবার রাতে বিয়ে অনুষ্ঠানে ভিড় জমায় মানুষ। জমজ বোনের সঙ্গে জমজ ভাইয়ের বিয়ের খবর শুনেই ছুটে আসেন তারা। এছাড়াও মেয়ের বাড়ির এলাকার লোকজনও বেশ আনন্দ উৎসবের মধ্য দিয়েই বিয়ে অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে।

জমজ ভাই ও বোনদের এ বিয়ে দেখতে যাওয়া রতন ঢালী জানান, জমজের সঙ্গে জমজের বিয়ে বিষয়টি ভিন্ন রকম। দাওয়াত না থাকলেও বিষয়টি অন্যরকম হওয়ায় সেখানে গিয়ে ঘুরে এসেছি। বেশ ভালোই লেগেছে। আলাদাভাবে দুই বোন এবং দুই ভাইয়ের বিয়ে হচ্ছে তাও একই অনুষ্ঠানের মাধ্যমে।

সৌরভ দাস নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, অনেক লোক এসেছে বিয়ে দেখতে। কেউ দাওয়াত পেয়ে আবার কেউ দাওয়াত না পেয়েও একনজর দেখতে এসেছে। এরকম বিয়ে তো সচরাচর দেখা যায় না, তবে বিষয়টি খুবই ভালো লেগেছে।

এদিকে এই দুই নবদম্পতি যাতে সুখী হয় সেই জন্য প্রার্থনা ও দোয়া চেয়েছেন তাদের স্বজনরা।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।