শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০৪:১৫ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
সিলেটে বিদ্যুৎস্পষ্ট হয়ে দুই স্থানে দুই জনের মৃত্যু জকিগঞ্জে বন্যার পানিতে ডুবে এক ব্যক্তির মৃত্যু চিনি ছিনতাই কান্ডে তাহমিদ নামে আরো একজন গ্রেফতার চিনি কান্ডে বিয়ানীবাজার উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত; রাজপথে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল বিয়ানীবাজারে বহুল আলোচিত চিনি কান্ড:এ পর্যন্ত গ্রেফতার ০২ সিলেটের মেজরটিলায় টিলা ধসে ৩ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু বিয়ানীবাজারে একই রাতে ১৫ আসামী গ্রেফতার জকিগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন:লোকমান,সবুর ও সুলতানার বিজয় বিয়ানীবাজার উপজেলা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ রায়হান সভাপতি,আকরাম সেক্রেটারি আমেরিকায় পুলিশের গুলিতে বিয়ানীবাজারের যুবক নিহত
মৌলভীবাজারে রেকর্ড ৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা

মৌলভীবাজারে রেকর্ড ৫.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা

দর্পণ ডেস্ক : মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে। এই তাপমাত্রা বিগত পাঁচ বছরের রেকর্ড ভঙ্গ করেছে।

সোমবার সকাল ৯টায় এই তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়। এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন শ্রীমঙ্গল আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আনিসুর রহমান।

তাপমাত্রা কমে যাওয়ার পাশাপাশি মৃদৃ শৈত্যপ্রবাহ থাকায় এ অঞ্চলের জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে। শীতের দাপট থেকে বাঁচতে খুব প্রয়োজনীয় কাজ ছাড়া লোকজন ঘরের বাইরে বের হচ্ছেন না। বয়স্ক মানুষ ও শিশুরা ঠাণ্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতে চিকিৎসা নিচ্ছেন। মাঘ মাস শুরু হওয়ার পর থেকেই জেলার হাওর ও পাহাড়বেষ্টিত অঞ্চলগুলোতে শীত জেঁকে বসে।

স্বাস্থ্যকর্মী মো. সেলিম বলেন, এবার ঠাণ্ডা একটু বেশি অনুভূত হচ্ছে। বিগত দুই-তিন বছর এতটা শীত লাগেনি। বিশেষ করে মাঘ মাস শুরু হওয়ার পর থেকে শীত বেড়ে গেছে।

শ্রীমঙ্গল আবহাওয়া অফিসের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনিসুর রহমান জানিয়েছেন ২০১৫ সালের পর এবারই সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয় সোমবার সকাল ৯ টায়।

মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডা. বিশ্বজিত বলেন, গত এক দেড় মাস থেকে ঠাণ্ডাজনিত রোগে শিশুরা আক্রান্ত হচ্ছে বেশি। বিশেষ করে সর্দি, কাশিজনিত রোগীই বেশি। মাঝে মাঝে নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়া আক্রান্ত রোগীও আসছে। অনেকেই হাসপাতালের বহির্বিভাগ থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।