শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:৩৪ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
১০ ফেব্রুয়ারিত আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিত সভা,ডাক পেয়েছে তৃণমূল সপ্তগ্রাম উচ্চ বিদ্যালয়ের আজীবন দাতা সদস্য হলেন যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী আব্দুল হাই(মায়া) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সভাপতি নুরুল ইসলাম নাহিদ ওসি তাজুল ইসলাম কানাইঘাট থেকে বিদায়,বিয়ানীবাজারে যোগাযোগ গোলাপগঞ্জে সিএনজি অটোরিকশা ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ,আহত ৩ মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ৫০টি মডেল মসজিদ উদ্বোধন করবেন আজ বিয়ানীবাজারে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধা নিবেদন সিলেটে সাংস্কৃতিক উৎসবে শিল্পীদের পরিবেশনায় মুগ্ধ দর্শক সিলেট ঢাকা মহাসড়কে একই পরিবারের ৪ জন সহ ৫ জন নিহত গোলাপগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
নাটোরে হাসপাতালে চুরি যাওয়া শিশু ৮দিন পর উদ্ধার

নাটোরে হাসপাতালে চুরি যাওয়া শিশু ৮দিন পর উদ্ধার

দর্পণ ডেস্ক : নাটোরের গুরুদাসপুর উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চুরি হওয়ার দুই মাসের শিশু তাইবারকে আট দিন পর উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার রাতে উপজেলার কচুগাড়ি গ্রাম থেকে ওই শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। এর পর ঘটনাস্থলে গিয়ে মা শিশুটিকে নিজের বলে শনাক্ত করেন।

এদিকে এ ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গুরুদাসপুর থানার ওসি মো. আবদুর রাজ্জাক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে বুধবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে গুরুদাসপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে চিকিৎসা নিতে আসা এক নারীর দুই মাসের কন্যাসন্তান চুরির ঘটনা ঘটেছে।

চুরি যাওয়া শিশু তাইবার মা সীমা বেগমের বাড়ি উপজেলার মশিন্দা ইউনিয়নের মাঝপাড়া গ্রামে। তিনি তৌফিজ মোল্লার স্ত্রী।

গুরুদাসপুর থানার ওসি মো. আবদুর রাজ্জাক জানান, বুধবার রাতে উপজেলার কচুগাড়ি গ্রাম থেকে ওই শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। এর পর ঘটনাস্থলে গিয়ে মা শিশুটিকে নিজের বলে শনাক্ত করেন। এ ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শিশুটির মা সীমা বেগম জানান, ‘আমার তিন ছেলেমেয়ে। গত দুই মাস আগে আমার গর্ভে জন্মগ্রহণ করেছে তাইবা। তার বয়স বর্তমানে দুই মাস। ঠাণ্ডাজনিত রোগের চিকিৎসা নিতে তাইবাকে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এসেছিলাম। চিকিৎসা নেয়ার পর হাসপাতালের বাহিরে দাঁড়ালে অজ্ঞাত এক নারী তার সন্তানকে দেখার জন্য তার কাছ থেকে নেয়। অজ্ঞাত নারীর কাছে সন্তান রেখে আউটডোরে যান। ৩-৪ মিনিট পর ফিরে এসে দেখেন তার শিশুসহ ওই নারী নেই। কিছুক্ষণ হাসপাতালের চারপাশ এবং মেইন সড়কগুলো খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্তানসহ ওই নারীকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।