বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪, ০২:৫৭ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
শিক্ষক মঞ্জুরুল ইসলামের মৃত্যুতে বিভিন্ন মহলের শোক সাড়ে ২১ লাখ টাকার ভারতীয় চিনি সহ দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশের জালে আটক বিয়ানীবাজারের দেলোয়ার আজ আওয়ামী লীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী সিলেটে বিদ্যুৎস্পষ্ট হয়ে দুই স্থানে দুই জনের মৃত্যু জকিগঞ্জে বন্যার পানিতে ডুবে এক ব্যক্তির মৃত্যু চিনি ছিনতাই কান্ডে তাহমিদ নামে আরো একজন গ্রেফতার চিনি কান্ডে বিয়ানীবাজার উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের কমিটি বিলুপ্ত; রাজপথে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল বিয়ানীবাজারে বহুল আলোচিত চিনি কান্ড:এ পর্যন্ত গ্রেফতার ০২ সিলেটের মেজরটিলায় টিলা ধসে ৩ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু বিয়ানীবাজারে একই রাতে ১৫ আসামী গ্রেফতার
এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে নববধূ ধর্ষণ ; ৬ আসামির ডিএনএ সংগ্রহ

এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে নববধূ ধর্ষণ ; ৬ আসামির ডিএনএ সংগ্রহ

দর্পণ ডেস্ক : এমসি কলেজের ছাত্রাবাসে গৃহবধূ ধর্ষণের ঘটনায় এজহার নামীয় ৬ আসামীর ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১ অক্টোবর) দুপুর সাড়ে ১২টায় পুলিশের পাহারায় তাদেরকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। যাদের ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে, সাইফুর রহমান, শাহ মাহবুবুর রহমান রনি, তারেক আহমদ, অর্জুন লঙ্কর, রবিউল ইসলাম ও মাহফুজুর রহমান। এই ৬ আসামীর পাশাপাশি আইনুদ্দিনসহ আর ২জন পুলিশের কাছে ৫দিনের রিমান্ডে রয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন সিলেট মহানগর পুলিশের উপ পুলিশের (গণমাধ্যম) জ্যোর্তিময় সরকার বলেন, এজহার নামীয় ৬ আসামীকে পুলিশ ডিএনএ নমুনা পরীক্ষার জন্য তাদেরকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজে নেয়া হয়। সেখানে নমুনা সংগ্রহ করার পর তাদেরকে পুলিশ আবার ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে পুলিশের হেফাজতে নিয়ে আসে।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের কারণে দেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করা হলেও সিলেটের কলেজের ছাত্রাবাস জোর করে খোলা রাখে ছাত্রলীগের কিছু ক্যাডার। গত ২৫ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) বিকালে প্রাইভেট কারে চড়ে কলেজ ক্যাম্পাসে সামনে গেলে এক নবদম্পতিকে জোরকরে ছাত্রাবাসে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে স্বামীকে ব্যাপক মারধর করার পাশাপাশি বেঁধে রেখে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধভাবে ধর্ষণ করা হয়। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী গৃহবধূর স্বামী শুক্রবার রাতে বাদী হয়ে শাহপরাণ থানায় মামলা করেন। মামলায় এজাহার নামীয় আসামি করা হয়েছে ৬ জনকে। সেই সঙ্গে অজ্ঞাতনামা আরও ২/৩ জনকে আসামি করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।