বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:৫৭ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
মাহফুজের সাথে বিচ্ছেদ করে নতুন সংসার গড়লেন ইভা সিলেট নগরীতে আত্মহত্যা করেছে আপন দুই বোন জলবায়ু বিষয়ে বিশ্ব নেতাদের কাছে ৬টি প্রস্তাব পেশ করলেন শেখ হাসিনা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন ৩৮ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজ লেখক, সংগঠক, অভিনেতা প্রশান্ত লিটনের ৪৩ তম জন্মদিন বিশ্বনাথে গলায় ছোরা চালিয়ে যুবকের আত্মহত্যা বহু সংখ্যক সিদ্ধান্ত গ্রহণের মধ্যদিয়ে সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভা সম্পন্ন গোলাপগঞ্জে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় দাদ-নাতির মৃত্যু স্কটল্যান্ডে সহকর্মীর ছুরিকাঘাতে বিয়ানীবাজারের এক যুবক খুন বিয়ানীবাজারের রামদায় মাইকে ঘোষণা দিয়ে দুই গ্রামবাসীর সংঘর্ষ
সিলেটে হৃদয় প্রেমিক কারাগারে,প্রেমিকা নিরাপত্তা হেফাজতে

সিলেটে হৃদয় প্রেমিক কারাগারে,প্রেমিকা নিরাপত্তা হেফাজতে

এর আগে ঐ যোগলকে সাহায্য করে ফাঁসেন প্রেমিকের বন্ধু ও সিএনজি অটোরিকশা চালক রাজীব হাসান অনিক (১৭)। হবিগঞ্জ জেলার লাখাই থানার তেঘরিয়া গ্রামের রাজু মিয়ার ছেলে সে। তাকে বুধবার (২৫ আগস্ট) কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে।গত মঙ্গলবার (২৪ আগস্ট) দিবাগত রাতে অনিককে দক্ষিণ সুরমার হুমায়ুন রশিদ চত্বর থেকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, দক্ষিণ সুরমার দাউদপুর মুছারগাঁও গ্রামের এক কিশোরীর (১৬) সঙ্গে একই গ্রামের হেলাল মিয়ার ছেলে আফছার আহমদ হৃদয়ের (১৯) প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। গত ১৪ আগস্ট রাত ১০টার দিকে ওই কিশোরী প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে যায়। ওই দিন তাদের সাহায্য করেন হৃদয়ের বন্ধু অটোরিকশা চালক অনিক।

১৭ আগস্ট ওই কিশোরীর ভাই রাসেল আহমদ দক্ষিণ সুরমা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে তিনি তার বোনকে হৃদয় অ’পহরণ করেছে বলে উল্লেখ করেন।

অভিযোগ দায়েরের পর থেকে হৃদয় ও রাসেলের বোনকে খুঁজতে থাকে পু’লিশ। পরে হৃদয়ের ভাই কওছারের মাধ্যমে অটোরিকশা চালক অনিকের সন্ধান পাওয়া যায় এবং তাকে মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে দক্ষিণ সুরমার হুমায়ুন রশিদ চত্বর থেকে গ্রেফতার করে দক্ষিণ সুরমা থানা পুলিশ। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে পুলিশকে জানায়, হৃদয় ও ওই কিশোরীর মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। হৃদয় সেদিন (১৪ আগস্ট) রাতে তাকে ফোন করে তার অটোরিকশা নিয়ে দক্ষিণ সুরমার বেজবাড়ি রাস্তার মুখে আসতে বলে। সেখানে অনিক আসার পর হৃদয় ও ওই কিশোরী তার গাড়িতে ওঠে প্রথমে দক্ষিণ সুরমার তেলিবাজারে যায়। পরে রাত ১২টার দিকে হৃদয় ও তার প্রেমিকাকে নিয়ে অনিক তার খালার বাড়িতে যায়। সেখানে রাত কাটানোর পর ১৫ আগস্ট দুপুরে প্রেমিক-প্রেমিকাকে ফেঞ্চুগঞ্জে হৃদয়ের খালার বাড়িতে পৌঁছে দেয় অনিক।

বুধবার অনিককে আদালতে প্রেরণ করলে সে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে। পরে বিকেলে তাকে কারাগারে প্রেরণ করেন আদালত।

এদিকে, বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে সিলেট মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট (তৃতীয়) আদালতে হৃদয় ও তার প্রেমিকার আত্মসমর্পণ করলে বিচারক শারমিন খানম নীলা তাদের কারাগারে প্রেরণের আদেশ দেন।

 

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি