শুক্রবার, ৩০ Jul ২০২১, ০৬:১২ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
আলোচিত হেলেনা জাহাঙ্গীরের গুলশানের বাসায় অভিযান চালাচ্ছে র‍্যাব গোয়াইনঘাটে প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে যুবকের গলাকাটা লাশ,চারজনকে আসামি করে থানায় মামলা আমেরিকা প্রবাসী নারী সেজে প্রতারণা, প্রতারককে শেখঘাট থেকে আটক করেছে বিয়ানীবাজার থানা পুলিশ করোনায় মারা গেলেন সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট সানিয়া আক্তার দেশে ফিরা ৫ লাখ প্রবাসী পাবেন সাড়ে ১৩ হাজার টাকা করে অনুদান বিয়ানীবাজার উপজেলা যুবলীগ নেতার পিতৃবিয়োগ,বিভিন্ন মহলের শোক ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৮৯২ সিলেন্ডার অক্সিজেন প্রদান করেছেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী জয়ের জন্য ভালোবাসা – ড.সেলিম মাহমুদ লিবিয়ায় হাসপাতালের আইসিইউতে এক বাংলাদেশি যুবকের মৃত্যু পবিত্র মক্কায় গলায় ফাঁস দিয়ে এক বাংলাদেশির আত্মহত্যা
মামুনুলের বিরুদ্ধে পোস্ট : সেই ঝুমনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

মামুনুলের বিরুদ্ধে পোস্ট : সেই ঝুমনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা

দর্পণ ডেস্ক : ধর্মীয় সংগঠন হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ মামুনুল হকের বিরুদ্ধে ফেসবুকে পোস্টদাতা হিন্দু ধর্মাবলম্বী যুবক ঝুমন দাশ আপনের (২৮) বিরুদ্ধে শাল্লা থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে।

মামলার বাদী হয়েছেন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. আবদুল করিম।

শাল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল হক মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় ঝুমন দাশকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এরআগে ১৬ মার্চ রাতে আটকের পর তাকে ১৭ মার্চ ৫৪ ধারায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে হাজির করা হয়। আদালত সেদিন তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। তিনি বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন।

ওসি নাজমুল হক জানান, ঝুমন দাশের বিরুদ্ধে সোমবার রাতে থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে। এই মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

গত ১৭ মার্চ ফেসবুকে হেফাজত নেতা মাওলানা মামুনুল হককে কটাক্ষ করে যুবকের স্ট্যাটাস দেন ঝুমন দাশ। এই স্ট্যাটাসের পর হেফাজত অনুসারীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিলে ঝুমনের পরিবার তাকে পুলিশের হাতে তুলে দেয়। এরপর হাজারও মামুনুল অনুসারী হিন্দু অধ্যুষিত নোয়াগাঁওয়ে হামলা চালিয়ে ৯০টির মত ঘরবাড়ি ভাঙচুর করে।

এ ঘটনায় ৫০ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরও দেড় হাজার মানুষের বিরুদ্ধে দুটি মামলা হয়। মামলায় প্রধান আসামি স্থানীয় ইউপি নেতা শহীদুল ইসলাম স্বাধীনসহ ৩৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এরআগে ১৫ মার্চ সুনামগঞ্জের দিরাইয়ে হেফাজতের এক ধর্মীয় সম্মেলনে মাওলানা মামুনুল হক ধর্মীয় সংখ্যালঘুদের কটূক্তি করে বক্তব্যের পাশাপাশি বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার রজতজয়ন্তী উৎসবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনের বিরুদ্ধে উসকানিমূলক বক্তব্য দেন। এরওআগে থেকে তিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভেঙে বুড়িগঙ্গায় ফেলে দেওয়া হবে এমন আক্রমণাত্মক বক্তব্যের কারণে দেশব্যাপী আলোচনায় আসেন।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি