বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ০১:৫২ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
বিয়ানীবাজারে নামধারী ছাত্রলীগ ক্যাডার সালাউদ্দিন গ্রেফতার কানাইঘাটে কারেন্টে তারে লাগে দাদা-নাতির মৃত্যু চুনারুঘাটে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব ১২ বছর পর ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার করেছে গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ নাসির ও তামিমার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জানুয়ারিতে জেলা পরিষদ নির্বাচন দ্বিতীয় ধাপে ৮৪৮ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে চুনারুঘাটে ৮ ঘন্টার ব্যবধানে একই পরিবারে ৩ জনের মৃত্যু আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্ম দিন পালন করেছে বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগ মাদক বিরোধী অভিযানে জীবন উৎসর্গ করলেন পুলিশ কর্মকর্তা পিয়ারুল
আমি গুণ্ডা-মাস্তান থেকে চেয়ারম্যান হয়েছি, মাহফিলে হামলাসহ অশ্লীল গালিগালাজ

আমি গুণ্ডা-মাস্তান থেকে চেয়ারম্যান হয়েছি, মাহফিলে হামলাসহ অশ্লীল গালিগালাজ

দর্পণ ডেস্ক : কুমিল্লা জে’লার লাকসাম উপজে’লায় গোবিন্দপুর ইউনিয়নের নারায়াণপুর গ্রামের মাহফিলে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন শামীম গত ৭ ফেব্রুয়ারি রোববার নিজেই মাহফিলের মঞ্চে উঠে ওয়াজরত অবস্থায় মা’ওলানা এম হাসিবুর রহমানের মাইক কেড়ে নিয়ে অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করেন এবং নিজেকে স’ন্ত্রা’সী এবং গুণ্ডাদের চেয়ারম্যান বলে দাবি করেন। পরে চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে একদল স’ন্ত্রা’সী বাহিনী এসে মা’ওলানা হাসিবুর রহমানের গাড়ি ভাঙচুর করে। তারপর অবস্থা খা’রা’প হওয়ায় জীবন বাঁ’চাতে মা’ওলানা হাসিবুর লাকসাম থা’না পু’লিশকে খবর দেন। পরে পু’লিশ এসে হুজুর ও তার সফর সঙ্গীদের নিরাপদ জায়গায় পৌঁছে দেন।

গতকাল সোমবার (৯ ফেব্রুয়ারী) বিকাল ৪টা ৪৭ মিনিটে তার ফেসবুকের ভেরিফাইড পেজে মা’ওলানা হাসিবুর রহমান গাড়ি ভাঙচুরের ছবিসহ চেয়ারম্যানের হা’ম’লার ঘটনাটি তিনি নিজ ভাষায় বর্ণনা করেন এবং পৃথকভাবে ওই ঘটনার একটি প্রত্যক্ষ ভিডিও আপলোড করেন। এতে মুহূর্তেই তা ভাই’রাল হয়ে যায়। সন্ধ্যা ৭টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মা’ওলানা হাসিবুরের স্ট্যাটাসটিতে লাইক পড়ে ১২ হাজার,কমেন্ট পড়ে ২ হাজার এবং বিভিন্ন জন শেয়ার করে ২ হাজার ২শটি। অ’পর দিকে হা’ম’লার ভিডিও এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ৪ হাজার ৫৬৩ জন দেখেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে চেয়ারম্যান শামীম হুঙ্কার দেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ওই সময় আমি এমন হুঙ্কার না দিলে মাহফিলে উপস্থিত প্রায় ১০/১২ হাজার লোক আমাকে মে’রে ফেলতো। মাহফিল পণ্ড করতে গেলেন কেন, এমন প্রশ্নের জবাবে চেয়ারম্যান শামীম বলেন, নিয়ম অনুযায়ী মাহফিলের অনুমুতি নেয়া হয়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি