বুধবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৬:৫০ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
গোলাপগঞ্জে পল্লীবিদ্যুৎ কর্মীর বিদ্যুৎ স্পর্শে মৃত্যু বিয়ানীবাজারে নামধারী ছাত্রলীগ ক্যাডার সালাউদ্দিন গ্রেফতার কানাইঘাটে কারেন্টে তারে লাগে দাদা-নাতির মৃত্যু চুনারুঘাটে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব ১২ বছর পর ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার করেছে গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ নাসির ও তামিমার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জানুয়ারিতে জেলা পরিষদ নির্বাচন দ্বিতীয় ধাপে ৮৪৮ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে চুনারুঘাটে ৮ ঘন্টার ব্যবধানে একই পরিবারে ৩ জনের মৃত্যু আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্ম দিন পালন করেছে বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগ
শ্রীমঙ্গলে হাতে নোট লেখা গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

শ্রীমঙ্গলে হাতে নোট লেখা গৃহবধূর লাশ উদ্ধার

দর্পণ ডেস্ক : মৌলভীবাজারের শ্রীমঙ্গলে আসমা বেগম (৩০) নামের এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ রোববার (৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার আলিশারকুল এলাকার একটি বাড়ি থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। উদ্ধারের সময় আসমা বেগমের হাতে একটি নোট লেখা ছিল।

আসমা উপজেলার আলিশারকুল এলাকার মতলিব মিয়ার মেয়ে বলে জানা যায়। তার পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করেছেন, আসমা বেগমকে তার স্বামী পরিকল্পিতভাবে হত্যা করেছেন।

জানা যায়, উপজেলার ভুনবীর ইউনিয়নের রাজপারা এলাকার মৃত ছোবান মিয়ার ছেলে মো. আব্দুল হালিমের (২২) সঙ্গে ৪ মাস পূর্বে বিয়ে হয় আসমা বেগমের। এর পূর্বে আসমা বেগমের আরেকটি বিয়ে হয়েছিল। সেই সংসার ভেঙে যায় এবং সেই সংসারে একটি ৬ বছরের কন্যাসন্তান রয়েছে। আব্দুল হালিম শ্রমিকের কাজ করেন। বিয়ের পর থেকে তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ ছিল বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ব্যাপারে আসমা বেগমের স্বামী আব্দুল হালিম জানান, প্রতিদিনের মতো শনিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে তারা খাবার খেয়ে ঘুমাতে যান। রোববার সকাল সাড়ে ৬টায় ঘুম থেকে উঠে দেখেন তার স্ত্রী পাশে নেই। তিনি ঘরের মধ্যে স্ত্রীকে খুঁজতে থাকেন। হঠাৎ দেখেন ঘরের উপরে তীরের সঙ্গে মাফলার গলায় দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে ঝুলন্ত অবস্থায় রয়েছে আসমার দেহ। তিনি তখন চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন এসে লাশ নিচে নামান। এ সময় আসমা বেগমের হাতে আত্মহত্যার নোট লেখা দেখা যায় বলে তিনি জানান।

তবে আসমা বেগমের বড় বোন আলেয়া বেগম দাবি করেন, আমার বোন আত্মহত্যা করার কথা নয়। তাদের স্বামী-স্ত্রীর মাঝে পারিবারিক ঝামেলা ছিল। আমাদের ধারণা আমার বোনকে তার স্বামী পরিকল্পিতভাবে খুন করেছে।

এ ব্যাপারে শ্রীমঙ্গল থানার ওসি মো. আব্দুছ ছালেক জানান, প্রাথমিকভাবে আত্মহত্যা মনে হলেও হয়তো স্বামীর প্ররোচনায় আসমা বেগম আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন। হাতের লেখার ঘটনার রহস্য উদঘাটনে এক্সপার্ট দিয়ে পরীক্ষা করা হবে এবং তদন্তসাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি