সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ১১:০৫ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
সুনামগঞ্জে পাথর দিয়ে মাথা থেঁতলে দিল এক নিষ্পাপ শিশুর

সুনামগঞ্জে পাথর দিয়ে মাথা থেঁতলে দিল এক নিষ্পাপ শিশুর

দর্পণ ডেস্ক : বাড়ির সামনে খেলছিল চার বছরের শিশু এনামুল হক মুসা (তালহা)। হঠাৎ এক যুবক এসে তাকে লাথি দিয়ে ফেলে দেয়। এরপর পাথর দিয়ে মাথায় এলোপাতাড়ি আঘাত করে নির্মমভাবে খুন করা হয়। সবার মুখে একটাই প্রশ্ন, ‘কী দোষ ছিল ফুটফুটে নিষ্পাপ এ শিশুটির? যে কারণে তাকে এভাবে হত্যা করা হলো।

শুক্রবার দুপুরে সুনামগঞ্জ পৌর শহরের গুজাউড়া হাছননগরে এ ঘটনা ঘটে। নিহত তালহা শহরের গুজাউড়া গ্রামের নুরুল হকের ছেলে।

এ সময় স্থানীয় লোকজন আবদুল হালিম নামে নেশাগ্রস্ত এক যুবককে হাতেনাতে ধরে পুলিশে দিয়েছেন। হালিমের বাড়ি সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের মঈনপুর গ্রামে। পুরো ঘটনাটি পাশের একটি সিসি ক্যামেরায় ধরা পড়েছে।

নিহতের স্বজনরা জানান, দুপুরে বাড়ির সামনে খেলছিল তালহা। এ সময় রাস্তা দিয়ে যাওয়া আবদুল হালিম প্রথমে তাকে লাথি দিয়ে মাটিতে ফেলে দেয়। এরপর একটি ভারী পাথর দিয়ে মাথায় পাঁচবার আঘাত করে। এতে তাহলার মাথা থেঁতলে যায় ও প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। পরে পাশের বাড়ির লোকজন গুরুতর অবস্থায় তালহাকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নেন। অবস্থার অবনিত হলে সেখান থেকে সিলেটের এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। সেখানে নিলে চিকিৎসক তালহাকে মৃত ঘোষণা করেন।

স্থানীয়রা জানায়, আবদুল হালিম একজন মাদকসেবী। নেশাগ্রস্ত অবস্থায় নিষ্পাপ ওই শিশুটিকে সে এমনভাবে হত্যা করেছে।

সুনামগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি মো. শহীদুর রহমান বলেন, ঘটনাটি খুবই মর্মান্তিক। একটি শিশুকে এভাবে কেউ খুন করতে পারে? স্থানীয় লোকজন এক যুবককে ধরে পুলিশে দিয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি