সোমবার, ২৯ নভেম্বর ২০২১, ০৬:৩৭ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
বিয়ানীবাজারে নামধারী ছাত্রলীগ ক্যাডার সালাউদ্দিন গ্রেফতার কানাইঘাটে কারেন্টে তারে লাগে দাদা-নাতির মৃত্যু চুনারুঘাটে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব ১২ বছর পর ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার করেছে গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ নাসির ও তামিমার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জানুয়ারিতে জেলা পরিষদ নির্বাচন দ্বিতীয় ধাপে ৮৪৮ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে চুনারুঘাটে ৮ ঘন্টার ব্যবধানে একই পরিবারে ৩ জনের মৃত্যু আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্ম দিন পালন করেছে বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগ মাদক বিরোধী অভিযানে জীবন উৎসর্গ করলেন পুলিশ কর্মকর্তা পিয়ারুল
ছাতকে সংঘর্ষ ; আহত ৩৫, আটক ২৭

ছাতকে সংঘর্ষ ; আহত ৩৫, আটক ২৭

দর্পণ ডেস্ক : ছাতকে নির্বাচনী মতবিনিমিয় সভাকে কেন্দ্র করে দু’মহল্লাবাসীর সংঘর্ষে অন্তত ৩৫ ব্যক্তি আহত হয়েছে। আহতদের ছাতক হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। সংঘর্ষে জড়িত সন্দেহে হাসপাতাল থেকে আহত ২৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

শনিবার (৩১ অক্টোবর) দুপুরে শহরের বাজনামহল ও বাঁশখলা মহল্লাবাসীর মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে জনৈক এক কাউন্সিলর পদপ্রার্থীর মতবিনিময় সভায় লোকজন আসতে প্রতিপক্ষের লোকজন বাঁধা প্রদান করে। এ নিয়ে শুক্রবার রাতে বাজনামহল এলাকায় বাঁশখলা মহল্লার আব্দুর রশীদের পুত্র শাহানুল ইসলাম জনি ও বাজনামহল মহল্লার মৃত ময়না মিয়ার পুত্র এহিয়া আবেদীন বাবু পক্ষদ্বয়ের মধ্যে হাতা-হাতি ও মারামারির ঘটনা ঘটে। বিষয়টি নিষ্পত্তির জন্য স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের মধ্যস্থতায় শনিবার সকালে শহরের কুমনা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সালিশ-বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। সালিশ-বৈঠক শেষে আবারো দু’ পক্ষের লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিলে বাজনামহল ও বাঁশখলা মহল্লাবাসী তুমুল সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। প্রায় ঘণ্টা ব্যাপী সংঘর্ষে উভয় মহল্লার অন্তত ৩৫ ব্যক্তি আহত হয়।

সংঘর্ষে মোস্তাকুর রহমান(১৯), শাহীন আহমদ(২৯), তাজির আহমদ(৬৭), রিয়াজ আহমদ(২৬), সাদিক আহমদ(২৪), রহিম আলী(২২), করিম মিয়া(২৪), জামিল আহমদ(১৬), সাকিব আহমদ(২৫), তানভির(২২), জয়নাল মিয়া(২৩), নূরুল আমিন(২৩), আবুল হোসেন(২৬), শাহানুল ইসলাম জনি(২০), ওয়াতির আলী(৪৫), রিপন মিয়া(৩০), আব্দুন নূর(৪০), রুমেন(২৫), আব্বাস(৩০), শহীদ হাসান(২২), আব্দুর রহিম(২০), আব্দুল আহাদ মামুন(৩২), নূরুল হক(২৯) জাহেদ আহমদ(২০), জয়নাল আবেদীন(৬০), শরীফ(২৩), রবি(২৪), সামছু মিয়া(২০), ইছহাক মিয়া(২৭), শামীম(৩০), সুজন(২৬), শফিক মিয়াসহ (৫৪) আহতদের ছাতক হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এদিকে সংঘর্ষে জড়িত সন্দেহে হাসপাতাল থেকে আহত ২৭ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

ছাতক থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাজিম উদ্দিন আটকের কথা স্বীকার করে জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি