বুধবার, ২০ অক্টোবর ২০২১, ০৩:৩৬ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
বিয়ানীবাজারে নামধারী ছাত্রলীগ ক্যাডার সালাউদ্দিন গ্রেফতার কানাইঘাটে কারেন্টে তারে লাগে দাদা-নাতির মৃত্যু চুনারুঘাটে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব ১২ বছর পর ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার করেছে গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ নাসির ও তামিমার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জানুয়ারিতে জেলা পরিষদ নির্বাচন দ্বিতীয় ধাপে ৮৪৮ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে চুনারুঘাটে ৮ ঘন্টার ব্যবধানে একই পরিবারে ৩ জনের মৃত্যু আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্ম দিন পালন করেছে বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগ মাদক বিরোধী অভিযানে জীবন উৎসর্গ করলেন পুলিশ কর্মকর্তা পিয়ারুল
গাড়ি-বাড়ির স্বপ্ন দেখায় চটপটিওয়ালার মাদক ব্যবসা

গাড়ি-বাড়ির স্বপ্ন দেখায় চটপটিওয়ালার মাদক ব্যবসা

দর্পণ ডেস্ক : লোভ নাকি পাপের দিকে নিয়ে যায়, আর সেটি করতে শুরু করেছিলেন চটপটিওয়ালা আল আমিন। নিজের জমজমাট ব্যবসা ছেড়ে অল্প মুনাফায় অধিক লাভ ও বড়লোক হওয়ায় আকাঙ্ক্ষা জাগে তার মনে। প্রচুর টাকা আয় করে বাড়ি, গাড়ি করার স্বপ্নে বিভোর হন ‘বুদ্ধিমান ও ভদ্রবেশী’ আল আমিন। কিন্তু সুকৌশলেও মাদক ব্যবসা করতে গিয়ে অবশেষে ধরা পড়েছেন তিনি।

রোববার রাজধানীর পল্লবী থানার অরিজিনাল ১০ নম্বর এলাকা থেকে এ মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়।

পুলিশ জানায়, আটক আল আমিনের অনেক বুদ্ধি। নতুন স্যান্ডেলের ভেতরে এক হাজার ২৫০ ইয়াবা ঢুকিয়ে জুতার ব্যাগে ভরে সে। আল আমিনের মনে অনেক সাধ, ইয়াবার চালান ঠিকমতো পৌঁছাতে পারলেই স্বপ্নপূরণ আটকায় কে! কিন্তু কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছার আগেই মাদক চোরাচালান সফলে দৃঢ় প্রত্যয়ী, চোখে সাফল্যের হাতছানি ধারণকারী আল আমিনকে আটক করা হয়। এতে ভেঙে যায় আল আমিনের বাড়ি, গাড়ির স্বপ্ন। আর স্বপ্নটি ভেঙে দেন পল্লবী থানার এসআই মো. রহিম।

পুলিশ ঘটনার বর্ণনা দিয়ে জানায়, আল আমিনের আচরণে সন্দেহের ভিত্তিতে জুতাসহ তাকে হাতেনাতে ধরে পুলিশ। আল আমিন শুরু করলো চোটপাট। আল আমিনের ডায়ালগ ‘স্যান্ডেল নিয়েও কি হাঁটতে পারবো না?’ কারণ তখনো স্যান্ডেললের ভেতরে কী আছে তা জানা যায়নি।

স্যান্ডেল জোড়া দেখতে চাইলে আল আমিন চাপাচাপি শুরু করলো। আল আমিনের প্রশ্ন ‘স্যান্ডেল দেখার কী আছে’? নাছোড়বান্দা এসআই রহিম। স্যান্ডেলের বকলেছ খুলতেই বেরিয়ে আসলো এক হাজার ২৫০ ইয়াবা। তাৎক্ষণিক তাকে আটক করা হয়। পরে আল আমিনকে আদালতে পাঠানো হয়।

পল্লবী থানার ওসি কাজী ওয়াজেদ জানান, আটক আল আমিনকে আদালতে পাঠানো হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাতদিনের রিমান্ড আবেদনও করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি