বুধবার, ২৭ অক্টোবর ২০২১, ১২:১০ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
বিয়ানীবাজারে নামধারী ছাত্রলীগ ক্যাডার সালাউদ্দিন গ্রেফতার কানাইঘাটে কারেন্টে তারে লাগে দাদা-নাতির মৃত্যু চুনারুঘাটে ধর্ষণ মামলার প্রধান আসামিকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব ১২ বছর পর ধর্ষণ মামলার পলাতক আসামি গ্রেফতার করেছে গোলাপগঞ্জ মডেল থানা পুলিশ নাসির ও তামিমার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জানুয়ারিতে জেলা পরিষদ নির্বাচন দ্বিতীয় ধাপে ৮৪৮ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে চুনারুঘাটে ৮ ঘন্টার ব্যবধানে একই পরিবারে ৩ জনের মৃত্যু আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৫তম জন্ম দিন পালন করেছে বিয়ানীবাজার উপজেলা আওয়ামী লীগ মাদক বিরোধী অভিযানে জীবন উৎসর্গ করলেন পুলিশ কর্মকর্তা পিয়ারুল
বানিয়াচঙ্গে পুলিশ সদস্যদের উপর হামলা করে আসামি ছিনতাই

বানিয়াচঙ্গে পুলিশ সদস্যদের উপর হামলা করে আসামি ছিনতাই

বানিয়াচং প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলায় পুলিশ সদস্যদের মারধর করে জিআর মামলার আসামিকে ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছে। স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের একজন সদস্যও এই হামলায় অংশ নেন। গতকাল বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় উপজেলার দক্ষিণ সাঙ্গর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহতদের মাঝে বানিয়াচং থানার সহকারী উপ পরিদর্শক (এএসআই) মোহাম্মদ তোহাকে রাজধানীর রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, দুইটি জিআর মামলার আসামী ও দক্ষিণ সাঙ্গর গ্রামের রমজান আলীর ছেলে বুলবুল মিয়াকে গ্রেপ্তার করতে কয়েকজন পুলিশ ওই গ্রামে যায়। এরপর সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে তাকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে আসার পথে মক্রমপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য শেখ মমিন মিয়া ও আসামির ভাই বদরুল মিয়াসহ একদল লোক পুলিশের ওপর হামলা করে। তখন হামলাকারীরা পুলিশ সদস্যদের মারধর করে আসামি নজরুলকে ছিনিয়ে নেয়।
হামলায় বানিয়াচং থানার এএসআই মোহাম্মদ তোহা, এএসআই সোহেল ও কনস্টেবল হাতিমুর রহমান আঘাতপ্রাপ্ত হান। এদের মাঝে এএসআই তোহাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে তাকে রাজারবাগ পুলিশ লাইন্স হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
হাসপাতালে আসা পুলিশ সদস্যরা জানান, এএসআই তোহার মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখম হয়েছে। চিকিৎসকদের সাথে কথা বলে পরবর্তী অবস্থা জানানো যাবে।
বানিয়াচং-আজমিরীগঞ্জ সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শেখ মো. সেলিম মিয়া জানান, আসামী গ্রেপ্তারের পর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য শেখ মমিন মিয়া ও বদরুলসহ লোকজন পুলিশকে মারধর করেছে। তারা আসামি নজরুলকে ছিনিয়ে নেয়। এ ব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।
রাত ১০টায় বানিয়াচং থানা পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, হামলাকারীদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি