রবিবার, ০৭ মার্চ ২০২১, ১১:০৬ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
বিয়ানীবাজার সরকারি কলেজের ছাত্র আকিব চলে গেছেন না ফেরার দেশে ঐতিহাসিক ৭ মর্চের ভাষণ নতুন প্রজন্মের প্রেরনার উৎস শহিদ আফ্রিদির মেয়েকে বিয়ে করছেন শাহিন আফ্রিদি গোপন ৮ স্ত্রী নক্সাবন্দীর , মামলা তুলে নিতে ৪র্থ স্ত্রীকে হুমকি শাবি ছাত্রীর গোসলের দৃশ্য ধারণের অভিযোগ সোমবার থেকে ব্রিটিশ নাগরিকদের ভ্রমণের জন্য নতুন আইন : অমান্য করলে ৬,৪০০ পাউন্ড জরিমানা সিলেটে ইনজেকশন পুশ করে স্ত্রীকে হত্যা, স্বামী আটক একদিনে কেজিতে পেঁয়াজের দাম বাড়ল ১০ টাকা সিলেটে ঐতিহাসিক ৭ মার্চে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা এই প্রথম ৭ মার্চ পালন : স্বাধীনতায় ভূমিকা রাখা সব জাতীয় নেতাকে প্রাপ্য সম্মান দিতে চায় বিএনপি
হবিগঞ্জে খোয়াই নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

হবিগঞ্জে খোয়াই নদীতে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের চুনারুঘাট এলাকায় খোয়াই নদী থেকে উচ্চ আদালত ও সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে কড়া নির্দেশনার পরও থামছেনা অবৈধভাবে বালু উত্তোলন। কোন ধরনের নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করে শ্যালো মেশিনের সাহায্যে বালু উত্তোলন করছে প্রভাবশালীরা। নদীর পাড়ে বালু ফেলার কারনে নষ্ট হচ্ছে পাড়ের ফসলি জমির উর্বরতা।

এমনকি ট্রাক, ট্রাক্টর,এস্কেবেটর মেশিন নদীর তীরে নেয়ার জন্য প্রতিরক্ষা বাঁধ নির্বিচারে কাঁটছে যে যার মত। সেতুর এক কিলোমিটারের মধ্যে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ থাকলেও সেতুর আশ পাশেই বালু উত্তোলন করা হচ্ছে প্রতিনিয়ত । অবৈধ এই কারবার বন্ধে স্থানীয় প্রশাসন মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে বার বার জরিমানা করলেও কাজের কাজ কিছুই হচ্ছেনা। প্রভাবশালী বালু কারবারিদের ভয়ে স্থানীয় লোকজন কিছু বলতে সাহস পাচ্ছেন না।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে,কাজিরখিল খোয়াই সেতু,পাকুড়িয়া খোয়াই সেতু ,রাজার বাজার খোয়াই সেতু এলাকাসহ আমকান্দি ঝুঁকিপূর্ন খোয়াই নদীর প্রতিরক্ষা বাঁধ সংলগ্ন এলাকায় নদীর গর্ভে শতাধিক শ্যালো মেশিন বসিয়ে বালু তুলা হচ্ছে। উপজেলার খোয়াই নদীর সীমানায় ৩০ টি পয়েন্ট দিয়ে নদীর পাড়ে ডুকছে ট্রাক্ট,ট্রাক্টর, এস্কেবেটর মেশিন। প্রতিদিন ট্রাক,ট্রাক্টর দিয়ে বালু নেওয়ায় খোয়াই নদীর দু’পাড়ের প্রতিরক্ষা বাঁধ ভেঙ্গে এখন হুমখির মূখে।

চুনারুঘাট উপজেলার খোয়াই নদীর বিভিন্ন অংশে ইজারা নেয়া তিন জন ইজারাদারই সরকারী নিয়মবর্হিভূতভাবে বালু উত্তোলন করছেন। তারা বালু ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ অনুসরন না করে বালু ও মাটি উত্তোলন করে যাচ্ছেন। ফলে পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতিসহ সংশ্লিষ্ট এলাকার বাঁধ, সেতু ও বাড়িঘর ভেঙ্গে হুমখীর মূখে পড়ছে।

এদিকে,কাজিরখিল বাজার,পাকুড়িয়া,কাঁচুয়া ও রাজার বাজারে রাস্তার পাশে বালুর ডিপু করায় রাস্তায় সৃষ্টি হচ্ছে যানযট। দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে স্থানীয়দের। ২৫ টন ওজনসম্পন্ন বালু ভর্তি শতাধীক ড্রাম ট্রাক দিয়ে প্রতিদিন বালু পরিবহন করায় এলকার সড়ক মহাসড়কে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে। ইজারাদারদের ক্ষুদ্র সার্থ রক্ষা করতে প্রতি বছর সড়ক মেরামত করতে সরকারের কোটি কোটি টাকার অপচয় হচ্ছে।

 

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি