মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল ২০২১, ০৮:২৯ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
হবিগঞ্জে খোয়াই নদীর উপর ২টি বেইলি ব্রীজ ঝুঁকিপূর্ণ

হবিগঞ্জে খোয়াই নদীর উপর ২টি বেইলি ব্রীজ ঝুঁকিপূর্ণ

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জ জেলা শহরের প্রবেশে খোয়াই নদীর ওপর নির্মিত দুটি বেইলি ব্রীজ ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করছে ছোট ছোট যানবাহন ও লোকজন। যে কোনও সময় ব্রিজ ভেঙে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। সওজ কর্তৃপক্ষ বলছে একটি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। প্রকল্পটি পাশ হলেই ব্রিজ দুটি নির্মাণ করা হবে।

জানা গেছে, হবিগঞ্জ শহরের প্রধান সড়ক চৌধুরী বাজার এলাকার পাশাপাশি কিবরিয়া ব্রিজ ও উমদা মিয়া ব্রিজ দিন দিন ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠছে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন জেলার ০৩টি উপজেলা নবীগঞ্জ,বানিয়াচং ও আজমিরিগঞ্জের শত শত যানবাহন ও লক্ষাধিক লোক এই দুটি ব্রিজ উপর দিয়ে চলাফেলা করছে। ব্রিজের মধ্যে লাগানো অনেক স্লাব উঠে গেছে। আবার অনেক স্থানে স্লাবগুলো ভেঙে গেছে। এছাড়া ব্রিজের নিচের পিলার অনেকাংশ ভেঙে গেছে। ব্রিজটি কোনও রকম জোরাতালি দিয়ে আটকে রাখা হয়েছে। সড়ক বিভাগ ব্রিজ দুটির পাশে ঝুঁকিপূর্ণ সাইনবোর্ড লাগালেও এদিকে বিকল্প কোনও ব্রিজ না থাকায় প্রতিদিন এর ওপর দিয়ে যানবাহন চলাচল করছে। তাদের আশঙ্কা যে কোনও সময় ব্রিজ ভেঙে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। এতে করে মানুষের প্রাণহানীর ঘটনা ঘটতে পারে।

স্থানীয় অটোরিকশা চালক রহিম মিয়া জানান,‘প্রতিদিন ব্রিজের ওপর দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হয়। যে কোনও সময় ভেঙ্গে বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।’

সিএনজি চালক রানা দেব জানান, ব্রিজের ওপর দিয়ে সিএনজি চলাচল করার সময় মনে হয় যে কোনও সময় ভেঙে পড়বে। যে কোনও সময় ব্রিজ ভেঙে মানুষের প্রাণহানীসহ বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। তাই শিগগির ব্রিজটি ভেঙে নতুন ব্রিজ করার জন্য কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানাচ্ছি।

হবিগঞ্জ শচীন্দ্র কলেজের শিক্ষার্থী সুমন সরকার জানান, কলেজ চলাকালীন সময় আসা-যাওয়া করতে প্রতিদিনই ব্রিজের ওপর দিয়ে আসতে হচ্ছে। রিকশা ও টমটমে ব্রিজের ওপর উঠলে ভয় করে।কারণ ব্রিজের বিভিন্ন জায়গায় স্লাব ভেঙে গেছে।’ ব্রিজের দুই পাশে ঝুঁকিপূর্ণ সাইনবোর্ড লাগানো আছে।

হবিগঞ্জ-নবীগঞ্জ সিএনজি অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের উপদেষ্টা ও সদর সিএনজি অটোরিকশা সমিতির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক কাসেম আলী জানান, প্রতিদিন ব্রিজ দিয়ে ০৩ উপজেলার শত শত সিএনজি সহ বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করে। প্রতিটি গাড়িই অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে পার হয়। এর ফলে যাত্রীরা চরম ঝুঁকির মধ্যে থাকে। আমরা দীর্ঘদিন ধরে ব্রিজ দুটি সংস্কারের জন্য স্থানীয় কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করলেও ব্রিজটি তাৎক্ষণিকভাবে সংস্কার করলেও পরক্ষনেই যানবাহনের চাপে ভেঙে যাচ্ছে। কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না। দ্রুত সময়ের মধ্যে ব্রিজ দুটি নতুনভাবে পাকা ব্রিজ করার জন্য আমরা সংগঠনের পক্ষ থেকে সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।

স্কুল শিক্ষিকা শ্রাবন্তী মজুমদার জানান, ব্রিজ দুটি অনেক পুরনো ও ঝুঁকিপূর্ণ হলেও ব্রিজটি সংস্কারে করলেও ঝুঁকি কমেনি। নতুন ব্রিজের উদ্যোগ নেওয়া জরুরি । আমাদেরকে স্কুল চলাকালীন সময় প্রতিদিন ঝুঁকির নিয়ে ব্রিজ পার হচ্ছি। যে কোনও সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।

হবিগঞ্জ সড়ক বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী সজিব আহমেদ জানান, ব্রিজ দুটি কঙ্কক্রিট দিয়ে নতুন করে তৈরির জন্য আমরা একটি প্রকল্প হাতে নিয়েছি। আশা করি প্রকল্পটি পাশ হলেই দুটি ব্রিজ নির্মাণ করা হবে। আপাতত দুটি ব্রিজ সংস্কার করে ছোট যান বাহন চলাচল স্বাভাবিক রাখার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি