সোমবার, ১৭ মে ২০২১, ০৩:৫৩ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
জামাতের অপপ্রচারের নিন্দা জানানো সিলেট প্রেসক্লাব পলাশ আফজালের কবিতায় ” মা দিবসে শিশুর আর্জি “ ১৯ দিনের রিমান্ড শেষে মামুনুল হক কারাগারে সুনামগঞ্জে শিশুদের মারামারিকে কেন্দ্র করে ঘাতকের হাতে ভাই-ভাবী খুন গোলাপগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত শিশুর দাপন কাপন সম্পন্ন নিউইয়র্কে সাংবাদিক এন সিন উদ্দিনের অকাল মৃত্যু,দেশে বিদেশে শোকের ছায়া বড়লেখা থেকে ১৮৫০ পিস ইয়াবা সহ ২ মাদক কারবারিকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব-৯ মাদ্রাসা ও এতিমখানার নামে ভুয়া রশিদ তৈরি করে চাঁদা আদায়;আটক ১১ প্রতারক ইফতারি ও ঈদের কাপড়ের জেরে ওসমানী নগরে অন্তঃসত্ত্বা নববধূ হত্যা;আটক -২ সুনামগঞ্জে ২৫০ টাকার জন্য বন্ধুর হাতে বন্ধু খুন
নবীগঞ্জে মহিলা মেডিকেল অফিসারের করোনা রিপোর্ট আসার আগেই করোনা জয়

নবীগঞ্জে মহিলা মেডিকেল অফিসারের করোনা রিপোর্ট আসার আগেই করোনা জয়

মোঃ তাজুল ইসলাম, নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) থেকেঃঃ হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলায় করোনা আক্রান্ত পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের মেডিকেল অফিসার প্রিয়াঙ্কা পাল চৌধুরী করোনা সনাক্ত রিপোর্ট ঢাকা থেকে আসতে আসতে করোনা জয় করলেন। নমুনা পরীক্ষার ১২ দিন পর প্রথম রিপোর্ট পজিটিভ আসার ০২ দিনের ব্যবধানে ২য় নমুনা পরীক্ষায় রিপোর্টটি নেগেটিভ এসেছে। এ ঘটনায় নবীগঞ্জে চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

জানা যায়, গত মঙ্গলবার (২৩ জুন) ঢাকা ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট ল্যাবরেটরি এন্ড রিসোর্স সেন্টারের পিসিআর ল্যাব থেকে পাঠানো প্রথম রিপোর্টে মেডিকেল অফিসার প্রিয়ংকা পাল চৌধুরী (৩৫) করোনায় আক্রান্ত বলে জানানো হয়েছিল। পরে বৃহস্পতিবার(২৫ জুন) পুনরায় সিলেট মেডিকেল কলেজে এন্ড হাসপাতালের পিসি আর ল্যাবে পরীক্ষার জন্য নমুনা দেওয়া হয়। মাত্র ০২ দিনের ব্যবধানে ( ২৬ জুন) শুক্রবার রাতে সিলেট মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতালের পিসিআর ল্যাব থেকে আসা ২য় নমুনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নবীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আব্দুস সামাদ জানান,গত ১১ই জুন নবীগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কমপ্লেক্সে নমুনা দেওয়ার ১২ দিন পর
কোন ধরনের লক্ষণ ছাড়াই গত ২৩ জুন মঙ্গলবার মেডিকেল অফিসারের প্রথম
করোনা পজিটিভ আসে পরে তিনি অতিরিক্ত সতর্কতা হিসেবে গত ২৫ জুন তার নমুনা আবার ২য় বারের মতো সিলেট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পিসিআর ল্যাবে পরীক্ষা করান। বুধবার (২৬ জুন) নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। করোনা শনাক্ত হওয়ার পর মেডিকেল অফিসার অফিসিয়াল কার্যক্রম ও চেম্বার বন্ধ রেখে ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে থেকে চিকিৎসা নেওয়ায় তিনি এরই মধ্যে সুস্থ হয়ে যান। যেজন্য উনার ২য় রিপোর্টটি নেগেটিভ এসেছে। তিনি আরও জানান, এ উপজেলায় ২৭ জুন পর্যন্ত ৫২ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছে। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ২৪ জন।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ক্রিয়েটিভ জোন আইটি