শুক্রবার, ০১ Jul ২০২২, ০৪:৫৮ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
শিরোনাম :
সিলেটে দুই শিশুসহ সৎ মাকে খুনের ঘটনায় কিশোর সেইফহোমে

সিলেটে দুই শিশুসহ সৎ মাকে খুনের ঘটনায় কিশোর সেইফহোমে

দর্পণ ডেস্ক : সিলেটে সৎমা, শিশু বোন ও ভাই খুনের ঘটনায় গ্রেফতার আহবাব হোসেন আবাদকে সেইফহোমে পাঠানো হয়েছে। খুনের ঘটনার মামলায় গ্রেফতার কিশোর আদালতে ১৬৪ ধারায় জবান্দবন্দিতে তার বয়স ১৭ বছর বলায় তাকে কারাগারে না পাঠিয়ে সেইফহোমে পাঠানো হয়।

শনিবার রাতে তাকে পুলিশের কাছ থেকে নিয়ে নগরের বাগবাড়ি সেইফহোমে পাঠানো হয়। আর তার বয়স নিশ্চিত হওয়ার জন্য পুলিশকে নির্দেশনা দেয়া হয়।

জানা যায়, গ্রেফতারের সময় ওই কিশোরের বয়স ১৯ বছর দেখানো হয়। শনিবার সন্ধ্যায় জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দেয়া জবানবন্দিতে সে তার বয়স ১৭ বছর বলে। ১৮ বছরের কম বয়স হওয়ায় শনিবার রাতে পুলিশের কাছ থেকে তাকে বাগবাড়ির নিরাপদ হেফাজতে পাঠানো হয়। এরইমধ্যে পুলিশ তার মূল বাড়ি বিয়ানীবাজার থেকে তার বয়স নিশ্চিতের সব কাগজপত্রাদি পেয়েছে। এতে তার বয়স পাওয়া গেছে ১৭ বছর ১ মাস।

সিলেট জেলা প্রবেশন কর্মকর্তা মো. তমির হোসেন চৌধুরী বলেন, সোমবার ওই কিশোরকে শিশু আদালতে হাজির করে পরবর্তী নির্দেশনার জন্য আবেদন করা হবে। তার বয়স এখানো আঠারো বছর হয়নি।

ওই কর্মকর্তা জানান, শিশু আইন ও শিশু সুরক্ষা নীতিমালা অনুযায়ী মামলাটি শিশু আদালতে স্থানাস্তর করা হবে। আদালত যদি তাকে জামিন না দেন তাহলে তাকে টঙ্গী অথবা গাজীপুরের শিশু উন্নয়ন কেন্দ্রে পাঠানো হবে।

শাহপরাণ থানার ওসি সৈয়দ আনিসুর রহমান বলেন, আদালতে ওই কিশোর তার বয়স ১৭ বলায় তাকে সেইফহোমে পাঠানো হয় ও তার বয়স নিশ্চিতের নির্দেশ দেয়া হয়। বর্তমানে তার বয়সের সকল প্রমাণাদি আমাদের হাতে এসেছে। তার এখনো আঠারো বছর হয়নি।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে সিলেটের শহরতলীর খাদিমপাড়া ইউনিয়নের বহর এলাকার মীর মহল্লা গ্রামে ৯ নম্বর বাসায় আবদাল হোসেন খানের দ্বিতীয় স্ত্রী রুবিয়া বেগম চৌধুরী, মেয়ে জান্নাতুল হোসেন মাহি ও তাহসান হোসেন খানকে কুপিয়ে হত্যা করে তার সৎ ছেলে। এ ঘটনার পর ঘটনাস্থল থেকেই ঘাতক কিশোরকে আটক করা হয়। পরে শুক্রবার রাত সাড়ে ১১টায় আহবাব নিহত রুবিয়া বেগমের ভাই আনোয়ার হোসেন এই ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলায় ওই কিশোর ও তার মাকে আসামি করা হয়।

 

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ওরাকল আইটি