রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০৪:৫৩ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
পরকীয়ার জেরে খুন হন মান্নাত

পরকীয়ার জেরে খুন হন মান্নাত

দর্পণ ডেস্ক : স্ত্রীর পরকীয়ার কারণেই খুন হন যশোরের স্কেভেটর শ্রমিক ইসরাফিল হোসেন মান্নাত। তার ভগ্নিপতি শাহ আলমসহ সাতজন এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত। যার মধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে চারজনকে। একই সঙ্গে উদ্ধার করা হয়েছে হত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত লোহার পাইপ, ইট ও মোটরসাইকেল।

সোমবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে নিজ কার্যালয়ের আয়োজিত প্রেস ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ আশরাফ হোসেন।

আটককৃতরা হলো যশোর সদর উপজেলার রামনগর খাঁ পাড়ার ছমেদ আলীর ছেলে আল আমিন, পুরাতন কসবা কাঁঠালতলা এলাকার আবু তাহেরের ছেলে রিফাত, সুজলপুরের আবদুর রশিদের ছেলে রায়হান শেখ ও শফিকুল ইসলামের ছেলে নয়ন হোসেন।

প্রেস ব্রিফিংয়ে পুলিশ সুপার জানান, গত ২৩ অক্টোবর রাতে নিজের বাইসাইকেল নিয়ে বের হয়েছিলেন মাটিকাটা স্কেভেটরের হেলপার মান্নাফ। রাতে আর বাড়িতে ফেরেননি তিনি। পরের দিন সকালে কারবালা এলাকার রাস্তার পাশ থেকে তার মাথা থেতলানো মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ঘটনায় নিহতের মা আনোয়ারা বেগম বাদী হয়ে মামলা করেন। এরপর ডিবি পুলিশ তদন্ত শুরু করে।

পুলিশ সুপার আরও জানান, মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে রোববার যশোর সদর ও অভয়নগর উপজেলায় অভিযান চালিয়ে হত্যায় জড়িত আল আমিন, রায়হান শেখ, রিফাত ও নয়ন হোসেন নামে চার জনকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তাদের স্বীকারোক্তি মতে হত্যাকাজে ব্যবহৃত লোহার পাইপ, ইট ও মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়।

আটককৃতরা জানিয়েছে, নিহত মান্নাতের ভগ্নিপতি শাহ আলমের সঙ্গে পরকীয় সম্পর্ক ছিল তার স্ত্রী সুমির। এ নিয়ে ঝগড়ার জের ধরে শাহ আলম হত্যার পরিকল্পনা করে। হত্যায় জড়িত শাহ আলমসহ অপর তিনজনকে ধরতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে জানান পুলিশ সুপার।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ওরাকল আইটি