রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০২:০৩ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
চলন্ত ট্রেনে উঠতে গিয়ে কুলাউড়ায় যাত্রীর হাত-পা বিচ্ছিন্ন

চলন্ত ট্রেনে উঠতে গিয়ে কুলাউড়ায় যাত্রীর হাত-পা বিচ্ছিন্ন

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের কুলাউড়া জংশন স্টেশনে চলন্ত ট্রেনে উঠতে গিয়ে তোয়াকুল মিয়া (৫৮) নামক এক যাত্রীর হাত ও এক পা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তোয়াকুল মিয়াকে প্রথমে কুলাউড়া হাসপাতালে ও পরে সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি প্রেরণ করা হয়।

মঙ্গলবার (৬ অক্টোবর) সকালে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে খোঁজ নিয়ে জানা যায় তার অবস্থা কিছুটা সংকটাপন্ন। সোমবার কয়েকদফা তার শরীরে অস্ত্রোপাচার করেন চিকিৎসকরা। এরআগে সোমবার ঢাকা থেকে সিলেটগামী আন্ত:নগর পারাবত ট্রেনে উঠতে গিয়ে এ দুর্ঘটনা ঘটে।
জানা যায়, শমসেরনগরের বিশিষ্ট মুদি ও স্টেশনারি ব্যবসায়ী তোয়াকুল মিয়া ব্যবসায়িক কাজে আন্ত:নগর পারাবত ট্রেনে সিলেট যাচ্ছিলেন। ট্রেনটি কুলাউড়া জংশন রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রা বিরতির সময় ব্যবসায়ী তোয়াকুল মিয়া ট্রেন থেকে নেমে পানের দোকানে গিয়ে পান কিনেন। এমন সময় পারাবত ট্রেন ছেড়ে দিলে তিনি দৌড়ে আবার ট্রেনের বগিতে উঠতে গিয়ে ছিটকে ট্রেনের নিচে পড়ে যান। এতে ট্রেনের চাকায় তার বাম হাত ও বাম পা শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।
ট্রেনটি স্টেশন ত্যাগের পর স্থানীয় লোকজন আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে প্রথমে কুলাউড়া হাসপাতালে নিয়ে যান। সেখানে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় দ্রুত সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়।
কুলাউড়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. নুরুল হক বলেন, তোয়াকুল মিয়ার হাত ও পা বিচ্ছিন্ন অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। সেখানে তার চিকিৎসা চলছে।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ওরাকল আইটি