সোমবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৬:০৯ অপরাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ
আমাদের সিলেট দর্পণ  ২৪ পরীক্ষামূলক সম্প্রচার চলছে , আমাদেরকে আপনাদের পরামর্শ ও মতামত দিতে পারেন news@sylhetdorpon.com এই ই-মেইলে ।
আদালত চত্বর থেকে বিচারকের গরু চুরি

আদালত চত্বর থেকে বিচারকের গরু চুরি

নিউজ ডেস্ক ◾আদালত চত্বর থেকেই বিচারকের কোরবানির গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে সিলেটে।সিলেটের আদালতের বিচারকদের কেনা গরু নিয়ে গেল চোর।এ কারণে বিচারকরা কোরবানি দিতে পারেননি।

রোববার (১০ জুলাই) ঈদের দিন সকাল ৭টা ২০ মিনিট থেকে ৭টা ৫০ মিনিটের মধ্যে আদালত চত্বর থেকে গরুটি চুরি হয়ে যায়।

এ ঘটনায় জেলা ও দায়রা জজ আদালতের ভারপ্রাপ্ত নাজির মো. কামাল উদ্দিন চৌধুরী বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা (নং-২৬(০৭)২০২২) দায়ের করেছেন।

সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার (মিডিয়া) বিএম আশরাফ উল্লাহ তাহের গণমাধ্যমকে মঙ্গলবার (১২ জুলাই) রাত ৯টার দিকে এ তথ্য জানান।

মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়, কোরবানির জন্য বিচারকরা গত ৮ জুলাই ৭০ হাজার টাকা দামের একটি নেরা লাল রংয়ের ষাঁড় কেনেন। গরুটি জেলা ও দায়রা জজ আদালত ভবনের নিচতলায় নেজারত বিভাগের সামনে গ্রিলের সঙ্গে রশি দিয়ে বাঁধা ছিল।

আদালতের নৈশ্য প্রহরি মজনু মিয়া ও হুমায়ন কবীরকে কোরবানির আগ পর্যন্ত গরুটি দেখাশোনার দায়িত্ব দেওয়া হয়। তারা গরুটি গেটের ভেতরে গ্রিলের সঙ্গে বেঁধে তালা দিয়ে নামাজে যান। নামাজ থেকে ফিরে দেখেন গরুটি নেই, চুরি হয়ে গেছে। পরে তারা ঘটনাটি নায়েব নাজির খাইরুল ইসলামকে ফোনে বিচারকদের গরু চুরির কথা জানান।

বিষয়টি কোতোয়ালি মডেল থানা পুলিশ ও বন্দরবাজার ফাঁড়ির ইনচার্জকে অবহিত করেন। সে সময় আদালতের ফটকে কোনো পুলিশ ছিলেন না। বরং পুলিশ বক্সগুলি তালাবদ্ধ ছিল বলেও এজাহারে উল্লেখ করা হয়। পাহারায় নিয়োজিতদের বরাত দিয়ে এজাহারে উল্লেখ করা হয়, ঈদের নামাজ চলাকালেই বিচারকদের কোরবানির গরু চুরি হয়েছে। বিষয়টি সুষ্ঠু তদন্তক্রমে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণের আবেদন করা হয়।
এ বিষয়ে কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আলী মাহমুদ বলেন, আমি ছুটিতে রয়েছি। তবে বিচারকদের গরু চুরি হয়েছে, এ বিষয়ে মামলাও দায়ের করা হয়েছে।বিষয়টি ওসি তদন্ত দেখছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

© স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৯ সিলেট দর্পণ ।

কারিগরি সহায়তায়ঃ-ওরাকল আইটি